AMD FX 8350 প্রসেসর রিভিউ

হাইলাইটস
রেটিং
কিনবেন কোত্থেকে
সুবিধা: দাম সাধ্যের নাগালে, ৮টি কোর, ১৬ মেগাবাইট ক্যাশ ম্যামোরি। গেমিং পারফরমেন্স থার্ড জেনারেশন Core i5 প্রসেসরের প্রায় কাছাকাছি, মাল্টিটাস্কিং-এর ক্ষেত্রে পারফরমেন্স কিছু কিছু Core i7-কেউ ছাড়িয়ে যায়। চমৎকার প্যাকেজিং।

অসুবিধা: ওভারহিট হয়। ওভারক্লকিং-এর ক্ষেত্রে দামী পাওয়ার সাপ্লাই এবং লিকুইড কুলার লাগতে পারে। ১০০% পারফরমেন্সের জন্য ৯০০ সিরিজের মাদারবোর্ড লাগবে। কিন্তু ৯০০ সিরিজের মাদারবোর্ডের দাম বেশি।
4.5/5N/A

amd8350
AMD Bulldozer সিরিজের পরবর্তী সংস্করণ AMD Piledriver সিরিজ যা পূর্ববতী সিরিজের তুলনায় ১৮% বেশি শক্তিশালী এবং “Vishera” কোড নামে পরিচিত। আজ আমরা পাইলড্রাইভার সিরিজের AMD FX 8350 প্রসেসরের পর্যালোচনা করবো।

AMD FX 8350 ৪.০ গিগাহার্টজ-এর একটি ৮ কোর বিশিষ্ট প্রসেসর। টার্বো মুডে এটি ৪.২ গিগাহার্টজ-এ উপনিত হতে সক্ষম। এর L2 এবং L3 ক্যাশ ৮ ম্যাগাবাইট করে মোট ১৬ ম্যাগাবাইট। এর টিডিপি হচ্ছে ১২৫ ওয়াট।

amd8350b
AMD 8350 সাধারণত ডিডিআরথ্রি ডুয়াল চ্যানেল ১৮৬৬ মেগাহার্টজ পর্যন্ত র‌্যাম সাপোর্ট করে। ৯০০ সিরিজের চিপসেট-এর মাদারবোর্ডে এই প্রসেসরটি সম্পূর্ণ পারফরমেন্স দিতে পারে; তবে কিছু কিছু ৭৬০ সিরিজের চিপসেট-এর মাদারবোর্ডও AMD 8350-কে সমর্থণ করে। তবে তা থেকে প্রসেসরটির সম্পূর্ণ পারফরমেন্স পাওয়া সম্ভব নয়। যেমন MSI 760GMA P34 FX মাদারবোর্ডটি AMD 8350-কে সাপোর্ট করলেও আমরা যখন Sapphire VaporX R9 270X 2GB DDR5 দিয়ে ডোটা ২ অনলাইন গেমটি খেলি তখন প্রায়ই এফপিএস ড্রপ-এর শিকার হই। গেমারদের জন্য এই অভিজ্ঞতা খুবই বিরক্তিকর। এছাড়া মাদারবোর্ডটিও ওভারহিট হয়। মাদারবোর্ড কেনার বাজেট কম হলে, Gigabyte 78LMT USB3 ব্যবহার করা যেতে পারে কেননা এর দাম কম হলেও এটি AMD 8350 সাপোর্ট করে। এবং আমরা এই মাদারবোর্ডে AMD 8350 ও একই গ্রাপিক্স কার্ডটি লাগিয়ে ডোটা ২ খেলার সময় এফপিএস ড্রপ-এর শিকার হয়নি। মাদারবোর্ডটি তেমনভাবে ওভারহিটও হয়নি। এ সত্ত্বেও প্রসেসরটির ১০০% পারফরমেন্স পেতে হলে আমাদের পরামর্শ হলো ৯০০ চিপসেটের মাদারবোর্ড ব্যবহার করা। যেমন: MSI 990FXA GD65/ MSI 990FXA GD80/ Gigabyte 990FXA UD5 ইত্যাদি।

amd8350c

AMD FX 8350 মূলত ১২৫ ওয়াট টিডিপি সম্পন্ন প্রসেসর, তবে টার্বো মুড অফ থাকা অবস্থায় এটি ১৫৭ ওয়াট পর্যন্ত ক্ষমতা ব্যবহার করে থাকে, এবং টার্বো মুড চালু থাকা অবস্থায় ওভারক্লকিং করা হলে এটি ২০০ ওয়াট পর্যন্ত ক্ষমতা ব্যবহার করে। এক্ষেত্রে পাওয়ার সাপ্লাই কমপক্ষে ৬০০ ওয়াট হতে হবে।

গেমিং পারফরমেন্সের দিক থেকে ইন্টেল প্রসেসর সব সময় এগিয়ে, কেননা পিসি গেমগুলো সাধারণত সিঙ্গেল কোর পারফরমেন্সের উপর বেশি নির্ভরশীল। এই প্রসেসরকে গেমিং-এর দিক থেকে আমরা Intel Core i5 3470-এর কাছাকাছি রাখতে চাই।

AMD FX 8350 প্রসেসরটি পারফরমেন্সের প্রশ্নে কখনও Core i5 3470, কখনও Core i5 2500k, এবং কখনও Core i5 3570k-এর কাছাকাছি চলে যায়। এবং ওভারক্লকিং করা হলে এর পারফরমেন্স আরও খানিকটা বেড়ে যায়।

amd8350d

 

এছাড়াও থ্রি-ডি এ্যানিমেশন তৈরির বিভিন্ন সফ্টওয়্যার-এর ক্ষেত্রে এটি Core i7 3820 এবং Core I7 3770-এর মাঝামাঝি পারফরমেন্স প্রদর্শন করে; ভিডিও এনকোডিং-এর ক্ষেত্রে এটি Core i7 3770k এবং Core I7 3960x-এর মাঝামাঝি পারফরমেন্স প্রদর্শন করে। অর্থাৎ গ্রাফিক্স এডিটিং এবং অন্যান্য অফিসিয়াল সফ্টওয়্যার ব্যবহারের ক্ষেত্রে AMD FX 8350 প্রসেসরটি Core i7 K সিরিজের বা এর সমমানের প্রসেসর এবং গেমিং-এর ক্ষেত্রে Core i5 থার্ড জেনারেশন প্রসেসর-এর মতো পারফর্ম করে।

amd8350e

AMD FX 8350 প্রসেসরটি বেশ গরম হয়ে ওঠে, এ কারণে স্টক কুলার ছাড়াও মার্কেটে বিভিন্ন সিপিইউ কুলার যেগুলো পাওয়া যায়, সেগুলো ব্যবহার করা যেতে পারে; যেমন: Coolermaster Hyper 212 EVO বা Thermaltake frio advance । কিন্তু AMD FX 8350-কে ওভারক্লকিং করার ক্ষেত্রে লিকুইড কুলার, যেমন: Cooler master Seidon 240M / Thermaltake Water 3.0 performer ইত্যাদি ব্যবহার করা উচিত। এর মাধ্যমে আপনি ৪.৮ থেকে ৫.০ গিগাহার্জ পর্যন্ত গতি পেতে পারেন।

যারা কম্পিউটারে হার্ডকোর গেমিং, ভারী কাজ বা মাল্টিটাস্কিং কাজ করেন, তাদের জন্য সাশ্রয়ী দামে Intel i7 সমমানের পারফরমেন্সের জন্য AMD FX 8350 প্রসেসরটি একটি চমৎকার সমাধান হতে পারে।

 

 

স্পেসিফিকেশন
amd8350f

Model :FX-8350
CPU Base : 4.0 ghz
CPU Max Turbo : 4.2 ghz
Number of Cores:8-Core
TDP : 125W
Cores : 8
L2 Cache :8 MB
L3 Cache :8 MB
MAX DDR3 :1866
Manufacturing Tech:32nm
Socket : AM3+

Leave a comment